কাউকে বাধ্য করার আমল

কাউকে বাধ্য করার আমল অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি জিনিস তার কারণ হলো যদি আপনার আপনজন আপনার বাধ্যের অবাধ্য হয়ে যায় তাহলে অনেক সময় অনেক ধরনের সমস্যা হয়। বিশেষ করে বর্তমানে সন্তানদের বাবা-মা কোনভাবে কন্ট্রোল করতে পারছে না সন্তানরা নিজের ইচ্ছামত চলছে এবং এইভাবে চলতে গিয়ে তারা বিপথে নেমে যাচ্ছে।

তাই কিভাবে সন্তানদের আল্লাহতালার পথে আনতে হবে এবং আল্লাহতালার পথে তাদের তাড়না করতে হবে সে সম্পর্কে কিছু দিকনির্দেশনা আমরা আজকে দেওয়ার চেষ্টা করব। আল্লাহ তাআলা কোরআন এবং হাদীসে যেভাবে আমাদের এই কাজগুলো করতে বলেছেন এবং এর পাশাপাশি যে উপায়ে একজন ব্যক্তিকে বাধ্য করা যায় সে সম্পর্কে জানবো।

তবে যারা বিভিন্ন ঝাড় ফুঁক বা কবিরাজের মাধ্যমে অন্যকে বশে আনার চেষ্টায় আছেন তারা এখান থেকে দূরে যেতে পারেন তার কারণ হলো আমরা এই ধরনের কোন তথ্য আজকে দিতে যাচ্ছি না। আমাদের পক্ষে কাউকে জোর করে বসে আনা এবং কাউকে জোর করে বাধ্য করা অত্যন্ত অনৈতিক একটি কাজ তাই আমরা এই ধরনের কোন তথ্য আজকে আমরা আপনাদের দিতে পারছি না।

স্বামীকে বাধ্য করার আমল

স্বামীকে বাধ্য করার ক্ষেত্রে যদি বিবাহিত স্বামী হঠাৎ করে আপনার ওপর ক্ষিপ্ত থাকে এবং আপনার ওপর থেকে তার মনোযোগ কমতে থাকে তাহলে আপনি বিভিন্ন আমলের মাধ্যমে থাকে আপনার প্রিয় করে তুলতে পারেন পুনরায়। এখানে পবিত্র কিছু কাজ আছে যে কাজগুলো আপনি করে নিজের সম্পর্কে বাধ্য করতে পারেন। (ইয়া শাহিদু) এটি আপনি সকালে 100 বার পড়ে নিজের অবাধ্য স্বামীকে ফু দিতে পারেন যার আমলের বদলাতে আপনার স্বামী আপনার উপর সন্তুষ্ট হতে পারে।

তবে সবার আগে যে কাজটি করতে হবে নিজের চরিত্র ঠিক করতে হবে এবং আল্লাহতালা সন্তুষ্টি অর্জনের জন্য আল্লাহতালা প্রিয় বান্দা হওয়ার জন্য আল্লাহ তা’আলা যে ফরজ কাজগুলো করতে বলেছেন সেগুলো করার পরে আল্লাহ তায়ালার কাছে দোয়া প্রার্থনা করতে হবে।

কারো মন নরম করার দোয়া

কারো মন নরম করার দোয়া বলতে এখানে বোঝানো হয়েছে যে আপনি কাউকে পছন্দ করেন কিন্তু সে আপনাকে পছন্দ করে না সে ক্ষেত্রে আপনি যদি ধর্ম নরম করতে চান তাহলে কি আমলের মাধ্যমে সেটা করতে পারেন।

আমরা আমাদের এই ওয়েবসাইটে বিভিন্ন সময় দোয়া করলে দোয়া গুলো কবুল হয় তার একটি সঠিক দিক নির্দেশনা দিয়েছি আশা করব আপনারা সেই সময় গুলো ব্যবহার করে আল্লাহতালার কাছে দোয়া প্রার্থনার মাধ্যমে কারো মন নরম করার জন্য দোয়া করতে পারেন।

অবাধ্য সন্তান কে বাধ্য করার দোয়া

বিভিন্ন সময় বেশিরভাগ ক্ষেত্রে সন্তানকে অবাধ্য দেখা যায় এবং অবাধ্য সন্তানকে মানুষ করা এবং আল্লাহর পথে আনা অত্যন্ত কষ্টসাধ্য হয়ে যায় অভিভাবকের পক্ষে। তার জন্য সূত্র থেকে সন্তানকে আল্লাহর রাস্তায় প্রেরণ করা এবং নামাজ পড়ার অভ্যাস করানো কোরআন মাঝে তেলাওয়াত করার অভ্যাস করানো উচিত একজন অভিভাবকের এতে করে সে যখন বড় হবে তখন সে আল্লাহর রাস্তায় চালিত হওয়ার শক্তি পাবে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *