ছোট ভাইয়ের জন্মদিনের ফানি শুভেচ্ছা

ভাই,আজ তোর জন্মদিন। তুই আমার ছোট ভাই হলেও সবসময় বন্ধু হয়েই তোর পাশে থেকেছি।আজ তোর জন্মদিন। জন্মদিনে তোকে খুব ভালো কিছু উপহার দেবার সামর্থ্য আমার নেই, শুধু দিতে পারি বুকভরা ভালোবাসা।

তুই যখন জন্মেছিস, আমার বয়স তখন ৭।ওই বয়সে ছেলেরা মোটামুটি সবকিছুই ভালোভাবে বুঝতে শেখে। আমিও আস্তে আস্তে সবকিছু বুঝতে শুরু করেছিলাম। ছোট থেকেই বাবা‌ মায়ের প্রচন্ড ভালোবাসার মধ্যে বড় হচ্ছিলাম আমি,এর মাঝে হঠাৎ লক্ষ্য করলাম মা আমার থেকে কিছুটা দূরে থাকছেন।আমি ছোটবেলায় ভীষণ দুষ্টু ছিলাম, আমার প্রচন্ড দুষ্টুমির জন্য ঐ মূহুর্তে মা আমার থেকে একটু দূরত্ব বজায় রাখতেন।

মাঝে মাঝে মাকে জিজ্ঞেস করতাম ,মা, তোমার পেট টা ফোলা কেন? মা বলতো তোমার ভাই আছে পেটের ভেতর।আমি তখন ভাবতাম,ভাই!
এরপর একদিন হঠাৎ মাকে হাসপাতালে নেওয়া হলো,আমি বাড়িতে একা। পরদিন বাবার সাথে আমি হাসপাতালে গিয়ে প্রথম তোকে দেখি। সেদিন প্রথম তোকে কোলে নিয়েছিলাম আমি। তুই চোখ বড় বড় করে আমার দিকে তাকিয়ে ছিলি।

বাড়িতে আসার পর মা সবসময় তোকে কোলে নিয়ে থাকতো দেখে আমার ভীষণ হিংসে হতো।আমি ভাবতাম আমাকে আর কেউ আদর করে না। বাবাকে দেখতাম দোকান থেকে বাড়িতে আসলেই তোকে কোলে নিতো প্রথমে।আমি বুঝতে পারতাম আমার ভালোবাসা ভাগ হয়ে গেছিলো।তখন তো আর বুঝতাম না ছোট ভাই কী জিনিস। আস্তে আস্তে বড় হয়ে বুঝতে পারলাম ছোট ভাইয়ের ভালোবাসা কত্ত মধুর হয়।

তুই একটু বড় হবার পর মা যখন তোকে বসিয়ে রেখে রান্নাঘরে কাজ করত তখন আমি বসে বসে তোর সাথে গল্প করতাম। মাঝেমধ্যে তুই ভীষণ কান্না করা শুরু করতি তখন রেগে আমি তোকে চেপে ধরতাম।এমন করার জন্য মা পরে অনেক বকা দিতো আমায়।

আমার সেই ছোট্ট ভাই টা আজ এত্ত বড় হয়েছে, দেশের সবচেয়ে বড় বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করছে ভাবলেই গর্বে বুকটা ভরে ওঠে। আমাদের অনেক স্বপ্ন তোকে নিয়ে।আজ আমাদের বাবা-মা আমাদের নিয়ে ভীষণ গর্বিত।দেখিস,আমরা একদিন অনেক ভালো কিছু করে সবার মুখ উজ্জ্বল করবে।

আজ এই খুশির দিনে যদি একসাথে কাটাতে পারতাম খুবই ভালো লাগতো। মা-বাবা খুব করে চাইছিলেন যেন এই দিনটাতে তুই বাড়িতে থাকিস। কিন্তু তোর সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষার জন্য থাকতে পারলি না। হয়তো আগামী বছরে দিনটা আমরা সবাই একসাথে খুব ভালো ভাবে কাটাতে পারব।

খুব মনোযোগ দিয়ে পড়াশোনা কর, আর হ্যাঁ, যদি পারিস এইবার একটা প্রেম কর। প্রেম করলে তোর ভিতরে ম্যাচিউরিটি আসবে। সারাদিন তো পড়াশোনা নিয়ে ব্যস্ত থাকিস, এবার না হয় বাইরের জগতটা চোখ খুলে দেখে নে। বাস্তব জ্ঞান ভেতরে না থাকলে ভবিষ্যতে তো ঠিকমত চলতে পারবে না। এখন যদি একটা প্রেম না করিস তবে বিয়ের পর বউকে নিজের নিয়ন্ত্রণে রাখবি কিভাবে??? প্রেম করার আগে মেয়ের সম্বন্ধে আমাকে একটু জানাস, নিজের জীবনের অভিজ্ঞতা থেকে যতটুকু পারি পরামর্শ দেওয়ার চেষ্টা করব। ছোট থেকে যেমন বন্ধু ভেবে এসেছিস তেমনভাবেই বন্ধুর মতো সব বিষয়ে পরামর্শ নিবি আমার থেকে। আশা করি কখনো কোনো ভুল পথে পা বাড়াবি না।

প্রিয় পাঠক, ছোট ভাইয়ের জন্মদিন আসলে আপনারা চিন্তিত হয়ে পড়েন কিভাবে তাকে শুভেচ্ছা জানাবেন। এতক্ষণ দেখলেন আমরা ছোট ভাইকে শুভেচ্ছা জানানোর মতো কিছু কথা আপনাদের সাথে শেয়ার করেছি। ছোট ভাইয়ের জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানানোর জন্য আরো অনেক পোষ্ট আমাদের ওয়েবসাইটে পাবেন। আমাদের ওয়েবসাইট থেকে আপনার পছন্দমত যেকোনো পোস্ট দেখে আপনার ছোট ভাইকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাতে পারেন। ছোট ভাইকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাতে তার জন্ম থেকে এখন পর্যন্ত ঘটে যাওয়া মজার মজার ঘটনাগুলো তুলে ধরতে পারেন। আপনার তার ভিতরের সম্পর্ক কতটা মধুর তা তুলে ধরতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.