কষ্টের জোকস

আমরা অনেকেই জোকস পড়তে অনেক ভালোবাসি। নিয়মিত জোকস পড়া কারো কারো অভ্যাস। যারা নিয়মিত জোকস পড়েন তারা খুব সহজেই তাদের মনের ক্লান্তি দূর করে ফেলতে পারেন। আমরা সারাদিন অনেক পরিশ্রম করার পর একটু হাসি খুশি থাকার জন্য অনেক রকম কাজ করার চেষ্টা করি। নিয়মিত জোকস পড়লে আপনি হাসিখুশি থাকতে পারবেন এবং পরের দিন পরিশ্রম করার জন্য নিজেকে রিচার্জ করে নিতে পারবেন।

আগে বাজারে জোকসের অনেক বই পাওয়া যেত। এখনো বাজারে জোকস এর বই পাওয়া যায়, কিন্তু সবকিছু অনলাইন ভিত্তিক হয়ে যাওয়ার কারণে জোকস এর বইগুলো মানুষ তেমনটা কিনতে চায় না। সাধারণত টিভিতে অনেক কমেডি অনুষ্ঠান দেখে মানুষ সময় কাটাই। এছাড়া ফেসবুক অথবা ইউটিউবে অনেক ফানি ভিডিও পাওয়া যায় যা দেখতে শুরু করলে মানুষ সেখান থেকে উঠতে চায় না।

ফেসবুক ইউটিউবে ফানি ভিডিও দেখতে দেখতে মানুষ এখন আর জোকস তেমনটা পড়তে চায় না। আপনারা লক্ষ্য করলে দেখবেন ছোটবেলায় আমরা যেসব জোকস গুলো পড়তাম সেই জোকসগুলোর টপিক নিয়ে এখন ভিডিও কনটেন্ট ক্রিয়েটররা ফানি ভিডিও তৈরি করে। ফানি ভিডিওগুলো দেখলে অনেক হাসি পায় তাই এগুলো দেখতে সবাই অনেক আগ্রহী থাকে।

আপনি যদি ফানি ভিডিও দেখতে ভালোবাসেন তাহলে আপনি নিশ্চয়ই জোকস পড়তেও অনেক বেশি ভালোবাসেন। যেহেতু এখন বাজারে জোকস এর বই একটি ব্যয়বহুল হয়ে যায় তাই আপনি খুব সহজেই অনলাইনের মাধ্যমে মজার মজার জোকস পড়তে পারবেন। অনলাইনে মজার মজার জোকস গুলো পেয়ে গেলে আপনাকে বই কিনে টাকা খরচ করে জোকস পড়তে হবে না।

আমাদের আজকের আলোচনার বিষয় কষ্টের জোকস। আমরা অনেক সময় এমন জোকস দেখে থাকি যা পড়লে আপনার কষ্ট লাগবে আবার হাসিও পাবে। বিষয়টি আপনি ফানি ভিডিওগুলো দেখে থাকলে বুঝতে পারবেন। এক সময় আমরা এমন ভিডিও দেখি যেখানে আজব আজব কাজ করতে গিয়ে মানুষ শরীরে ব্যথা পায়, তাদের এই আজব কাজগুলো দেখলে আমাদের অনেক হাসি পায় তার সাথে তাদের শরীরে আঘাত পাওয়া তে আমাদের অনেক খারাপ লাগে।

একটা সময় ছিল আমরা দেখতাম টিভিতে অনেক কমেডি শো হতো। এই ধরনের শোগুলোতে দেখা যেত অনেকেই বড় বড় রিস্ক নিয়ে কাজ করতো, শেষমেষ তাদের দুর্ঘটনার কবলে পড়তে হতো। এসব শো গুলো দেখে আমাদের অনেক হাসি পেত আবার দুর্ঘটনার জন্য কষ্ট লাগতো। অনেকে কঠিন কঠিন জায়গায় সাইকেল চালানোর চেষ্টা করত কিন্তু শেষমেষ ব্যর্থ হয়ে বড় দুর্ঘটনার শিকার হতো।

আজ আমরা আপনাদের সাথে ব্যতিক্রমধর্মী কিছু জোকস নিয়ে আলোচনা করতে এসেছি। সাধারণত আপনারা পেট ব্যথা করার মত হাসির জোকস পড়ে থাকেন, কিন্তু আপনারা আজ যে জোকস সম্বন্ধে জানবেন তাতে আপনাদের যেমন হাসিও পাবে তেমনি আপনারা ইমোশনাল হয়ে যাবেন। হাসির জোকস গুলো পাশাপাশি এই জোকসগুলো আপনার মন ভালো করার বড় ঔষধ হতে পারে।

আপনারা যারা নিয়মিত জোকস পড়েন তারা সব সময় নতুন নতুন জোকস পাওয়ার জন্য নানান জায়গায় খোজাখুজি করেন ‌। নতুন নতুন জোকস আপনারা আমাদের কাছে খুব সহজেই পেয়ে যাবেন। আপনাদের একই জোকস বার বার করতে হবে না। আমাদের আশেপাশে ঘটে যাওয়া মজার মজার ঘটনা নিয়ে দম ফাটানো জোকস গুলো তৈরি করা হয়। আপনি আমাদের কাছে গোপাল ভার, বল্টু,জোলা, নাসিরুদ্দিন হোজ্জা সবার জোকস পাবেন।

আপনি যদি নিয়মিত জোকস পড়ে থাকেন তবে আমাদের ওয়েবসাইটে সবকিছুর আগে খুজতে পারেন। আমাদের ওয়েবসাইটে দেওয়ার জোকস গুলো পড়তে শুরু করলে আপনার হাসিও যেমন পাবে তেমনি অনেক নতুন তথ্য আপনি জানতে পারবেন। আমরা নিয়মিত আমাদের ওয়েবসাইটে নতুন এবং ব্যতিক্রমধর্মী জোকসগুলো দিয়ে থাকি। এসব জোকসগুলো আমরা আমাদের আশেপাশের বয়স্ক মানুষের থেকে সংগ্রহ করে আপনাদের সাথে শেয়ার করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.