হাসির কৌতুক ১৮++

কৌতুক পড়তে কে না ভালোবাসে ‌। আমরা সকলেই কৌতুক পড়তে ভীষণ পছন্দ করি। ছোটবেলায় বড়দের কাছে আমরা গল্প শোনানোর জন্য বায়না ধরতাম। এসব গল্পের মধ্যে অনেক গল্প ছিল যা শোনার পর অনেক বেশি হাসি পেত। হাসির গল্প গুলো বার বার শোনার জন্য বড়দের পেছনে লেগে থাকতাম। আমি জানি পাঠকদের জীবনে ওঅনেকের-ই আমার মত এমন ঘটনা ঘটেছে।

যেসব বন্ধুরা সত্যিই কৌতুক পড়তে অনেক বেশি ভালোবাসেন তাদের জন্য আমরা নিয়মিত অনেক মজা মজা কৌতুক নিয়ে হাজির হই। আপনারা যারা নিয়মিত আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করছেন তারা নিশ্চয়ই পেট ব্যথা করা অনেক হাসির কৌতুক পড়েছেন। আমাদের আজকের টপিক একটু ভিন্ন। প্রথমে বলে রাখি আমাদের আজকের লেখাটিও কৌতুক নিয়েই,তবে আজ আমরা কথা বলবো প্রাপ্ত বয়স্কদের কৌতুক নিয়ে। প্রাপ্তবয়স্কদের কৌতুক বলতে আমরা 18 প্লাস কৌতুক বুঝে থাকি। 18 প্লাস বলতে 18 বছরের উপরের সকলে এই কৌতুক গুলো পড়তে পারবে। সাধারণত 18 বছরের নিচের সকলকে আমরা শিশু বলে থাকি। সুতরাং শিশুদের এসব কৌতুক থেকে দূরে থাকা উচিত এবং আমাদের উচিত শিশুদের সামনে এ ধরনের কৌতুক নিয়ে আলোচনা না করা। আপনি যদি প্রাপ্তবয়স্ক হয়ে থাকেন তবে আজকের এই লিখাটি শুধু আপনার জন্য।

কিছু কিছু কৌতুক থাকে যেগুলো সবার সামনে বলা সম্ভব নয়। শিশুদের সামনে ধরনের কৌতুক বললে তাদের উপর অনেক খারাপ প্রভাব পড়তে পারে। আমরা সকলেই চাই শিশুরা সুন্দর সংস্কৃতির চর্চা করুক। শুধু শিশুরা নয় আমাদের সকলেরই সুস্থ ও সুন্দর সংস্কৃতি চর্চা করা উচিত। তবে মাঝে মাঝে বন্ধু-বান্ধবের সাথে মজা করার জন্য আমরা 18 প্লাস জোকস নিয়ে আলোচনা করে থাকি।

আপনি যদি 18 প্লাস জোকস গুলো পড়তে ভালবাসেন তবে এখন থেকে আমাদের পোস্ট থেকে সংগ্রহ করতে পারবেন। আমরা অনেকেই 18 প্লাস জোকস পড়তে ভালবাসি কিন্তু এ ধরনের জোকস কোথাও খুঁজে পাওয়া আমাদের জন্য খুবই মুশকিল হয়ে পড়ে। আপনাদের কথা ভেবে আমরা বিভিন্ন জায়গা থেকে সংগ্রহ করেছি 18 প্লাস হাসির জোকস গুলো। এই জোকসগুলো পড়লে আপনার হাসি আটকাতে পারবেন না তার সাথে মজার মজার ঘটনা সম্বন্ধে জানতে পারবেন।

18 প্লাস বলতে আমরা অনেকে খারাপ কিছু বলে থাকি। এখানে ব্যাপারটা ক্লিয়ার করা উচিত। 18 প্লাস বলতেই খারাপ কিছু নয়। 18 প্লাস বলতে শুধু বোঝানো হয়েছে প্রাপ্ত বয়স্কদের কথা। আমরা চাইলেই অপ্রাপ্তবয়স্কদের সাথে সব কিছু আলোচনা করতে পারিনা। 18 বছরের নিচে যাদের বয়স তারা সবাই অপ্রাপ্তবয়স্ক। সব সময় খেয়াল রাখবেন শিশুদের এসব ব্যাপার থেকে নিরাপদ দূরত্বে রাখতে।

আমাদের ওয়েব সাইটে নিয়মিত কৌতুক পোস্ট করার একমাত্র উদ্দেশ্য আপনাদের বিনোদন দেওয়া। সারাদিনের কাজকর্ম সেরে আপনারা যেন আমাদের ওয়েবসাইটে এসে হাসির কৌতুক গুলো পড়ে কিছু সুন্দর মুহূর্ত উপভোগ করতে পারেন এই লক্ষ্যে আমরা সব সময় কাজ করে যাচ্ছি। আপনাদের মানসিক প্রশান্তির জন্য যে কোন সময় আমাদের ওয়েবসাইটে এসে পোস্টগুলো পড়ে অজানা তথ্যগুলো জেনে নিতে পারবেন এবং মজার পোস্ট গুলো পড়ে মনটা হালকা করে নিতে পারবেন।

অনেক সময় বন্ধু-বান্ধবের আড্ডায় এই জোকসগুলো নিয়ে আলোচনা করলে সবাইকে একসাথে হাসানো সম্ভব। আপনি যদি আপনার বন্ধুদের মজার মজার ১৮++ জোকস গুলো শোনাতে চান তাহলে আমাদের লেখা সবগুলো জোকস মনোযোগ দিয়ে পড়ে তাদের সামনে উপস্থাপন করতে পারবেন। এই জোকস গুলো পড়ার পর আপনি নিজে যেমন আপনার হাসি থামাতে পারবেন না তেমনি আপনার থেকে আপনার বন্ধুরা জোকস গুলো শুনলে বারবার আপনার কাছে আসবে এমন জোকস শোনার জন্য। আপনিও তাদের আড্ডার মূল আকর্ষণ হয়ে উঠতে পারবেন।

এই জোকস গুলো কখনোই ছোটদের সামনে বলবেন না। যখন প্রাপ্ত বয়স্ক দের নিয়ে কোন আড্ডায় থাকবেন সে সময় এই জোকসগুলো সুন্দরভাবে উপস্থাপন করবেন। ছোটদের সামনে এমন জোকস উপস্থাপন করলে আপনার সম্বন্ধে তাদের মনে নানা রকম প্রশ্ন জেগে উঠতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.