কষ্টের স্ট্যাটাস ২০২২ ছেলেদের ও মেয়েদের রাতের ইমোশনাল ফেসবুক স্ট্যাটাস সমগ্র

আপনারা যারা ভীষণ হতাশায় ডুবে আছেন তারা অনেক সময় মনের অজান্তেই পাগলামি করে বসছেন। একজন হতাশাগ্রস্থ মানুষ ছোট বাচ্চাদের মত আচরণ করে থাকে। প্রচন্ড ম্যাচিওর একজন মানুষ হতাশাগ্রস্ত হলে ইম’ম্যাচিউর মানুষের মতো আচরণ করতে থাকে। হতাশায় নিমজ্জিত হলে এই ব্যাপারগুলো ঘটা স্বাভাবিক। হতাশায় ডুবে থাকে মানুষ তার মনের কথাগুলো কাছের মানুষের কাছে শেয়ার করার অনেক চেষ্টা করে কিন্তু এসব কথা শোনার মত কেউ থাকেনা। এজন্যই তারা চায় তাদের কথাগুলো এমন কোথাও বলতে অথবা লিখতে যেন সবার কাছে পৌঁছে যায়।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কোন কথা শেয়ার করলে তা বেশিরভাগ মানুষের কাছে পৌঁছে যাওয়া সম্ভাবনা থাকে। সেজন্যই আপনার লক্ষ্য করে দেখবেন কোন মানুষ হতাশাগ্রস্ত হলে তার মনের কথাগুলো লিখে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিতে থাকে। অনেক মানুষ এই ব্যাপারগুলো পজিটিভ ভাবে নিলেও বেশিরভাগ মানুষই এগুলোর অনেক সমালোচনা করে। অনেকে বলে থাকে এসব কথা সবার সাথে শেয়ার করার প্রয়োজন কি। ওই অবস্থায় আমাদের ভেতরে হয়তোবা এত কিছু ভাবনা থাকে না। আমরা কি করছি না করছি এগুলো মস্তিষ্ক খুব একটা ভাবতে চায় না।

আজ আমরা আপনাদের সাথে যে বিষয় নিয়ে আলোচনা করব তা হল কিভাবে আপনার কষ্টের কথাগুলো স্ট্যাটাস এর মাধ্যমে শেয়ার করবেন। আপনার কষ্টের কথাগুলো এমনভাবে স্ট্যাটাসের মাধ্যমে শেয়ার করতে হবে যেন সবাই ব্যাপারটা পজিটিভলি নিতে পারে। তো চলুন দেখা যাক কিভাবে শেয়ার করলে আপনার মনের কথাগুলো মানুষ ঠিক ভাবে বুঝতে পারবে।

আজকের পোস্টে আপনারা যা যা পাবেন

১. কষ্টের স্ট্যাটাস
২. ছেলেদের ইমোশনাল ফেসবুক স্ট্যাটাস
৩. মেয়েদের ইমোশনাল ফেসবুক স্ট্যাটাস

কষ্টের স্ট্যাটাস

আমরা যখন কোন কারণে কষ্ট পায় তখন সে ব্যাপারটি সবাইকে জানানোর জন্য ফেসবুকের মাধ্যমে শেয়ার করে থাকি। কষ্টের কথাগুলো কিভাবে বললে মানুষ খুব সহজে বুঝতে পারবে তা আমাদের অনেকেরই অজানা। তাই আমরা কিছু নমুনা স্ট্যাটাস আপনাদের সাথে শেয়ার করব যেগুলো আপনারা নিজেদের ফেসবুক পোস্টে শেয়ার করতে পারবেন অথবা এমন ভাবে লিখে ফেসবুক স্ট্যাটাস দিতে পারবেন। ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেওয়ার জন্য লেখাগুলো অবশ্যই সুন্দর ও শ্রুতি মধুর হতে হবে। আপনার কথাগুলো যেন পাঠকের হৃদয় ছুঁয়ে যায় এমন ভাবে লেখার চেষ্টা করতে হবে। এতে করে আপনি খুব সহজেই সকলের কাছে নিজের কষ্টের কথা গুলো প্রকাশ করতে পারবেন।

ছেলেদের ইমোশনাল ফেসবুক স্ট্যাটাস

আমাদের অনেকের ধারণা ছেলেরা খুব বেশি ইমোশনাল হয় না। তবে এই ধারণাটি সম্পূর্ণ ভুল। ছেলেরাও ভীষণ ইমোশনাল হয় এবং এরা অল্পতেই অনেক বেশি কষ্ট পেয়ে যায়। ছেলেরা ইমোশনাল হয়ে পড়লে তাদের সামলানো খুব কঠিন হয়ে পড়ে। আপনি যদি একজন ছেলে হয়ে থাকেন এবং ইমোশনাল হয়ে পড়লে নিজেকে সামলাতে না পারেন তখন ফেসবুকে কষ্টের স্ট্যাটাস দিয়ে থাকেন। এমন স্ট্যাটাস দেওয়ার সময় কি লিখবেন তা মাথায় আসেনা। যদি এমন পরিস্থিতিতে পড়ে থাকেন তবে আমাদের পোস্ট থেকে ছেলেদের ইমোশনাল ফেসবুক স্ট্যাটাস গুলো সংগ্রহ করে নিতে পারবেন। এসব স্ট্যাটাস গুলো নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে শেয়ার করতে পারবেন এবং মনের কষ্টগুলো প্রকাশ করতে পারবেন।

মেয়েদের ইমোশনাল ফেসবুক স্ট্যাটাস

মেয়েরা যে খুব বেশি আবেগপ্রবণ হয় এতে কোন সন্দেহ নেই। আবেগের বশে মেয়েরা অনেক কিছু করে ফেলতে পারে। তবে মেয়েদের সামনে নানা রকম বাধা থাকায় তারা সিরিয়াস কিছু করার আগে অনেক কিছু চিন্তা করে থাকে। তবে ফেসবুক স্ট্যাটাস দেওয়ার জন্য এত কিছু ভাবার প্রয়োজন হয় না। যেকোনো কারণে কষ্ট পেলেই এরা ইমোশনাল স্ট্যাটাস দিয়ে বসে। ইমোশনাল স্ট্যাটাস দেওয়ার জন্য আপনারা আমাদের পোস্ট থেকে সুন্দর সুন্দর লেখা সংগ্রহ করতে পারবেন। আপনারা যদি ইমোশনাল কোনো ছবি পোস্ট করে থাকেন তবে তার ক্যাপশন আমাদের ওয়েবসাইটে পাবেন। আশা করি আপনারা ইমোশনাল পোস্ট দেওয়ার আগে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করে সুন্দর সুন্দর ক্যাপশন গুলো সংগ্রহ করে নিবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *