বাটপারি জোকস

মানুষের অন্যান্য মৌলিক চাহিদার মত বিনোদন ও খুবই জরুরী। আপনার পেটের ক্ষুধা নিবারণ করা যেমন প্রয়োজনীয়, তেমনি আপনার মনের ক্ষুধা নিবারণ করা ও প্রয়োজন। বিভিন্ন কারণে হতাশায় ডুবে থাকলে বিনোদন আমাদের সবচেয়ে বেশি দরকার হয়। বিনোদনের মধ্যে না থাকলে আপনি কোন কাজে সম্পূর্ণভাবে মনোযোগ দিতে পারবেন না। সারাদিন কঠোর পরিশ্রমের পর শুদ্ধ সংস্কৃতি চর্চার মাধ্যমে আপনি আপনার মনের ক্ষুধা নিবারণ করতে পারেন। আমরা আমাদের অবসর সময়গুলো বিভিন্ন কাজের মধ্য দিয়ে কাটাই। অবসর সময়ে আমরা টিভি দেখি, খবরের কাগজ পড়ি, গান শুনি অথবা গল্পের বই পড়ি। খবরের কাগজে আমরা বিভিন্ন ধরনের প্রতিবেদন পড়ে থাকি। টিভিতে কমেডি কনটেন্ট গুলো দেখে আমরা আনন্দ নেওয়ার চেষ্টা করি, একইভাবে খবরের কাগজে অথবা গল্পের বইয়েও কৌতুক পড়ে আমরা ভীষণ মজা পাই।

কৌতুক এমন একটি উপাদান যা আপনাকে হাসতে বাধ্য করবে। হাসিখুশি থাকা কতটা জরুরি তা আপনি মন খারাপের সময় বুঝতে পারবেন। তাই বিষন্নতার মধ্য দিয়ে আপনার সময় গেলে আপনি বিভিন্ন কৌতুকের বই কিনে পড়তে পারেন। আধুনিক এই যুগে সাধারণত গল্পের বই কেউ কিনে পড়ে না। আপনি কৌতুকের বইও না কিনে অনলাইনে কৌতুক পড়তে পারেন।

আপনারা যারা নিয়মিত কৌতুক পড়তে আগ্রহী তাদের জন্য আমাদের আজকের লেখা। গল্পের বই অথবা খবরের কাগজে যারা নিয়মিত কৌতুক পড়ে থাকেন তাদের জন্য খুশির খবর এইযে এখন থেকে আমাদের ওয়েবসাইটে আপনি মজার মজার কৌতুক পড়তে পারবেন। আপনারা যারা বইয়ে অথবা পত্রিকায় কৌতুক পড়েন তারা নিশ্চয় জানেন পত্রিকায় অথবা কৌতুকের বইয়ে একই ধরনের জোকস গুলো বারবার দেওয়া হয়। বারবার একই জোকস না পড়ে আমাদের ওয়েবসাইটের নতুন নতুন জোকস গুলো আপনি নিয়মিত পড়তে পারবেন। আমাদের ওয়েবসাইটের জোকস গুলো পড়লে হাসতে হাসতে আপনার পেট ব্যাথা হয়ে যাবে।

আজ আমরা বাটপারি জোকস নিয়ে আলোচনা করব। আমাদের ওয়েবসাইটে আপনারা অনেক বাটপারি জোকস পাবেন। বাটপারি বলতে কোন বিষয় নিয়ে বাড়িয়ে বলা কে বোঝায়। যেমন ধরেন আমি আমার পূর্বপুরুষ অথবা ব্যক্তিগত সম্পদ নিয়ে বাড়িয়ে বাড়িয়ে মানুষের কাছে গল্প করে বেড়াচ্ছি, এটাকেই বাটপারি বলা হয়। বাটপারি জোকস গুলো পড়লে মনে হবে যেন আপনার চোখের সামনেই এই ঘটনাটি ঘটছে।

অনেক সময় ছাত্ররা পরীক্ষার পড়া নিয়ে অনেক ব্যস্ত থাকে। দিনরাত পড়াশোনার মধ্যে থাকতে থাকতে তাদের মানসিক চাপ অনেক বেড়ে যায়। মানসিক চাপ কমাতে নিয়মিত জোকস পড়া হতে পারে ওষুধের মতো। আপনি নিয়মিত জোকস পড়লে সব সময় হাসি খুশি থাকতে পারবেন। সব সময় হাসিখুশি থাকলে দেখবেন আপনার সব মানসিক চাপ কেটে গেছে।

অনেক বন্ধুরা অফিসের কাজ নিয়ে সারাদিন ব্যস্ত থাকেন। অফিসে সারাদিন হাড়ভাঙা পরিশ্রমের পর শরীর যেন আর চলে না। এই সময় শরীর চালাতে গেলে দরকার হয় মানসিকভাবে চাঙ্গা হওয়ার। মানসিকভাবে চাঙ্গা হতে গেলে আপনাকে এমন কিছু করতে হবে যা থেকে আপনার মন একদম উৎফুল্ল হয়ে যায়। আমাদের ওয়েবসাইটের জোকসগুলো সেই সময় পড়লে দেখবেন মনের অজান্তেই আপনার ক্লান্তি ভাব দূর হয়ে গেছে।

অনেক বেকার ভাইয়েরা একের পর এক ব্যর্থতার পর নিজের উপর থেকে আত্মবিশ্বাস হারিয়ে ফেলে। এ সময় তারা হতাশার ভেতরে চলে যেতে থাকে। এ অবস্থা থেকে বাইরে বেরিয়ে আসতে চাইলে তাদের মানসিকভাবে স্বাভাবিক হওয়া জরুরী। প্রচণ্ড চাপের ভেতর থেকে মাঝে মাঝে বের হয়ে নিজেকে রিফ্রেশ করার দরকার হয়। তাই পরিশ্রম এর ফাঁকে ফাঁকে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করে পড়ে ফেলতে পারেন মজার মজার বাটপারি জোকসগুলো। আপনাদের জন্য আমরা নিয়মিত মজার মজার জোকস গুলো সংগ্রহ করে বেড়াচ্ছি।

সুস্থ ও সুন্দর সংস্কৃতি চর্চা করতে গেলে ইন্টারনেট এর সঠিক ব্যবহার জরুরী। অনলাইনে আজেবাজে কাজ না করে যা থেকে আমরা উপকৃত হব সেই ধরনের কাজ করা উচিত। নিয়মিত বাটপারি জোকস পড়তে আমাদের সাথে থাকুন এবং জোকস গুলো কেমন হয়েছে তা নিয়ে মন্তব্য করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.